আমাকে আগে বাঁচানোর চেষ্টা করুন: আইনজীবীদের খালেদা জিয়া

বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন, ০১৭৭৬৭৮৫৪৭৮, ০১৯৬৭৯৭৯০৯৩

ঢাকা : কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বলেছেন, আমাকে আগে বাঁচানোর চেষ্টা করুন। আগে আমার চিকিৎসা দরকার। আমার অবস্থা খুবই খারাপ।

শুক্রবার রাজধানীর নাজিম উদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় কারাগারে তার চার আইনজীবী দেখা করতে গেলে খালেদা জিয়া তাদের এসব কথা বলেন।

শুক্রবার বিকাল পাঁচটার দিকে খালেদা জিয়ার চার আইনজীবী অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, এজে মোহাম্মদ আলী ও আব্দুর রেজ্জাক খান কারাগারে প্রবেশ করেন। প্রায় এক ঘণ্টা সাক্ষাৎ শেষে সন্ধ্যা ৬টার দিকে বেরিয়ে আসেন তারা।

সাক্ষাৎ শেষে এডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘সাক্ষাতে খালেদা জিয়া জানিয়েছেন, গত দিন আদালতে জোর করে তাকে নেয়া হয়েছে। উনার বাম পাশ অবশ। চোখেও আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি আমাদের বলেছেন- আগে আমাকে (উনাকে) বাঁচানোর চেষ্টা করুন। আগে আমার (উনার) চিকিৎসা দরকার। তিনি উঠতে পারছেন না। খুবই খারাপ অবস্থা।’

জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘সাক্ষাতে ম্যাডামকে (খালেদা জিয়া) আমরা যেভাবে দেখেছি তাতে তিনি কীভাবে আগের দিন আদালতে এসেছেন সেটা নিয়ে ভাবছি।

এ আইনজীবী বলেন, ‘আমরা মনে করি আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাকে বিশেষায়িত হাসপাতালে নেয়া হোক। ইউনাইটেড, অ্যাপোলো বা যে কোনো বেসরকারি বিশেষায়িত হাসপাতালে ভর্তি করা হোক। আগে তার চিকিৎসা, পরে বিচার। খালেদা জিয়ারও বিচার পাওয়ার অধিকার রয়েছে। তিনি তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী।’

উল্লেখ্য, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার শুনানি এতদিন চলছিল কারাগারের কয়েকশ গজ দূরে বকশীবাজারে আলিয়া মাদ্রাসাসংলগ্ন কারা অধিদফতরের মাঠে বিশেষ এজলাসে। নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে গত মঙ্গলবার আইন মন্ত্রণালয় এক প্রজ্ঞাপনে পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারের প্রশাসনিক ভবনের ৭ নম্বর কক্ষকে আদালত ঘোষণা করে সেখানেই চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার শুনানি করার নির্দেশ দেয়। এরপর বুধবার সেই আদালত বর্জন করেন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। এ কারাগারেই আরেকটি ভবনের দোতলার একটি কক্ষে গত সাত মাস ধরে বন্দি রয়েছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি একই বিচারক তাকে পাঁচ বছর কারাদণ্ড দেন।

জেএস/

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন