ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী আইআরজিসির ইউনিফর্মে সংসদে ইরানের এমপিরা

আইআরজিস’র পোশাক পরে তাদের সমর্থন দিলো ইরানের সব সাংসদ

ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসির প্রতি সমর্থন জানাতে বাহিনীর ইউনিফর্ম পরে সংসদ অধিবেশনে যোগ দিয়েছেন দেশটির সব সংসদ সদস্য। এলিট ফোর্স হিসেবে পরিচিত বাহিনীকে যুক্তরাষ্ট্রের সন্ত্রাসী বাহিনী ঘোষণার পরদিন মঙ্গলবার বাহিনীর পোশাক পরে সংসদে হাজির এমপিরা। এদিন সব সংসদ সদস্যের একটি গ্রুপ ছবিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

ইরানি সংসদের স্পিকার পরিষদের সদস্য আহমাদ আমিরাবাদি ফারাহানি এ সম্পর্কে বলেছেন, গতকাল সোমবার রাতে আমেরিকা আইআরজিসি-কে সন্ত্রাসী সংগঠনের তালিকাভুক্ত করার পর ওই বাহিনীর পোশাক পরার পরিকল্পনা নেয়া হয়। সংসদ সদস্যরা পরিকল্পনাটিকে স্বাগত জানান। এরপর আইআরজিসি’র কাছ থেকে ইউনিফর্ম পরার অনুমতি নেওয়া হয় এবং ইউনিফর্ম সরবরাহের আবেদন জানানো হয়।

ইরানি সংসদ সদস্যরা বলছেন, তারা এই পদক্ষেপের মাধ্যমে আমেরিকাকে এই বার্তাই দিয়েছেন যে ইরানের সব মানুষ আইআরজিসি-কে প্রাণ দিয়ে ভালোবাসে। আইআরজিসি-কে সন্ত্রাসী আখ্যা দিয়ে এই বাহিনীর জনপ্রিয়তা নষ্ট করতে পারবে না।সোমবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি-কে সন্ত্রাসী সংস্থা হিসেবে কালো তালিকাভুক্ত করেছে।

এদিকে ইরানের আইআরজিসিকে সন্ত্রাসী সংগঠন ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছে সৌদি আরব।সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তার বরাতে দেশটির প্রভাবশালী গণমাধ্যম আল আরাবিয়াহ এ তথ্য জানিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে এতে বলা হয়, এ উদ্যোগটি সন্ত্রাসবাদ বিরোধী প্রচেষ্টায় একটি বাস্তব এবং গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। সৌদি আরব ইরানের আইআরজিসি সম্পর্কে এত দিন যে আশঙ্কার কথা বলছিল,এ সিদ্ধান্ত সেটিকেই প্রতিষ্ঠিত করল।

আইআরজিসি একটি সন্ত্রাসী সংগঠন, এ ব্যাপারে সৌদি আরব আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে আগে থেকেই বলে আসছিল। ইসলামি বিপ্লবী গার্ডকে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী হিসেবে ঘোষণা করতে বিশ্বের অন্যান্য দেশের প্রতিও আহ্বান জানিয়ে ইরানের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী সৌদি আরব জানায়, বিশ্বের শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে অন্যান্য দেশগুলোরও যুক্তরাষ্ট্রের মতো এমন সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন