একনজরে হজ

বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন, ০১৭৭৬৭৮৫৪৭৮, ০১৯৬৭৯৭৯০৯৩

হজে তামাত্তু

►  ওমরাহ ও হজ উভয়টির নিয়তে ইহরাম বাঁধা (ফরজ)।

►  ওমরাহর তাওয়াফ করা (ফরজ)।

►  ওমরার সাঈ করা (ওয়াজিব)।

►  মাথা মুড়িয়ে বা ছেঁটে হালাল হওয়া (ওয়াজিব)।

►  ৮  জিলহজ মক্কায় হজের ইহরাম (ফরজ)।

►  ৮ জিলহজ মিনায় অবস্থান (সুন্নাত)।

►  ৯ জিলহজ আরাফাতের ময়দানে অবস্থান (ফরজ)।

►  ৯ জিলহজ সূর্যাস্তের পর থেকে মুজদালিফায় অবস্থান ও

রাত্রি যাপন করা। তবে ১০ জিলহজ ফজরের পরও কিছু সময় অবস্থান

করা (ওয়াজিব)।

►  ১০ জিলহজ বড় জামরায় কঙ্কর নিক্ষেপ (ওয়াজিব)।

►  দমে শোকর তথা হজের কোরবানি (ওয়াজিব)।

►  মাথার চুল মুণ্ডন করা (ওয়াজিব)। তবে চুল ছেঁটেও নেওয়া যায়।

►  তাওয়াফে জিয়ারত (ফরজ) এবং সাঈ করা।

►  ১১ ও ১২ জিলহজ কঙ্কর নিক্ষেপ করা (ওয়াজিব)।

►  মিনায় থাকাকালীন মিনাতেই রাত যাপন করা (সুন্নাত)।

►  বিদায়ী তাওয়াফ (ওয়াজিব)।

 

হজে কিরান

►  ওমরাহ ও হজ উভয়টির নিয়তে ইহরাম বাঁধা (ফরজ)।

►  ওমরাহর তাওয়াফ করা (ওয়াজিব)।

►  ওমরাহর সাঈ করা (ওয়াজিব)।

►  তাওয়াফে কুদুম করা (সুন্নাত)।

►  ৮ জিলহজ মীনাতে অবস্থান (সুন্নাত)।

►  ৯ জিলহজ আরাফাতের ময়দানে অবস্থান (ফরজ)।

►  ৯ জিলহজ সূর্যাস্তের পর থেকে মুজদালিফায় অবস্থান ও রাত্রি যাপন। তবে ১০ জিলহজ ফজরের পর কিছু সময় অবস্থান করা (ওয়াজিব)।

►  ১০ জিলহজ বড় জামরায় কঙ্কর নিক্ষেপ (ওয়াজিব)।

►  দমে কিরান তথা হজের কোরবানি (ওয়াজিব)।

►  মাথার চুল মুণ্ডন করা (ওয়াজিব)। তবে চুল ছেঁটেও নেওয়া যায়।

►  তাওয়াফে জিয়ারত (ফরজ) এবং সাঈ করা।

►  ১১ ও ১২ জিলহজ কঙ্কর নিক্ষেপ (ওয়াজিব)।

►  মীনায় থাকাকালীন মীনাতেই রাত যাপন করা (সুন্নাত)।

►  বিদায়ী তাওয়াফ (ওয়াজিব)।

 

হজে ইফরাদ

►  শুধু হজের নিয়তে ইহরাম বাঁধা (ফরজ)।

►  মক্কা শরিফ পৌঁছে তাওয়াফে কুদুম করা (সুন্নাত)।

►  মীনায় পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ ও রাতযাপন (সুন্নাত)।

►  আরাফাতের ময়দানে অবস্থান (ফরজ)।

►  মুজদালিফায় রাত যাপন করুন (সুন্নাত)। তবে ১০ জিলহজ ফজরের পর কিছু সময় অবস্থান ওয়াজিব।

►  ১০ জিলহজে জামরাতে সাতটি কঙ্কর নিক্ষেপ করুন (ওয়াজিব)।

►  যেহেতু এ হজে দমে শোকর ওয়াজিব নয়, তাই কঙ্কর নিক্ষেপের পর মাথা হলক করে নিতে হবে। তবে চুল ছেঁটেও নেওয়া যায় (ওয়াজিব)।

►  তাওয়াফে জিয়ারত করা (ফরজ)। যদি তাওয়াফে কুদুমের পর সাঈ করে থাকেন, তাহলে পুনরায় সাঈ করার প্রয়োজন নেই (ওয়াজিব)।

►  ১০, ১১ ও ১২ জিলহজে আগে বর্ণিত নিয়ম ও সময়ে কঙ্কর নিক্ষেপ করা (ওয়াজিব)।

►  বদলি হজকারী ইফরাদ হজ করবেন।

 

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন