খালেদাকে বিএসএমএমইউতে আনা হচ্ছে বিকেলে

বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন, ০১৭৭৬৭৮৫৪৭৮, ০১৯৬৭৯৭৯০৯৩

কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য অবশেষে আজ শনিবার (৬ সেপ্টেম্বর) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে।

বিএসএমএমইউ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল হারুন এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আজ দিনের দ্বিতীয় ভাগের যেকোনো সময়ে তাকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে হাসপাতালে আনা হবে।

তিনি জানান, কারা কর্তৃপক্ষ তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে বেগম খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তারাও জেলকোড অনুযায়ী তার থাকার ও চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহণ করছেন।

তাকে একটি ভিআইপি কেবিনে রাখা হবে বলে আভাস পাওয়া গেছে।

কারা মহাপরিদর্শক (আইজি প্রিজন) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিন জানিয়েছেন, আজ (শনিবার) বিকেল ৩টার দিকে খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে নেয়া হবে।

কারা সূত্র জানায়, খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য আজ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে নেয়ার জন্য তার কাপড়-চোপড় দিয়ে যেতে বলা হয়েছিল। ইতোমধ্যে বেলা পৌনে ১১টার দিকে খালেদা জিয়ার বাসার কেয়ারটেকার আবদুল জলিল তিনটি লাগেজে করে তার কাপড়-চোপড় দিয়ে গেছেন।

এদিকে সিনিয়র জেল সুপার ইকবাল কবির চৌধুরী বেলা ১১টা ১০ মিনিটে কারাগারে প্রবেশ করেছেন। তবে এ সময় কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি তিনি।

অন্যদিকে ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডের পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগার এলাকায় নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। সেখানে ফায়ার সার্ভিসের গাড়িসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে।

কারাগার ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, গতকাল (শুক্রবার) দুপুরে হাইকোর্টের রায়ের কথা জানিয়ে কারা কর্মকর্তারা খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউ হাসপাতালে যাওয়ার জন্য অনুরোধ জানান। তাৎক্ষণিকভাবে রাজি না হলেও পরে তিনি আজ (শনিবার) যাবেন বলে জানান। তখন থেকেই প্রস্তুতি নিচ্ছে কারা কর্তৃপক্ষ।

এর আগে সরকারের তরফ থেকে খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল বা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়ার জন্য প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল। কিন্তু খালেদা জিয়া ওই দুটি হাসপাতালে যেতে রাজি না হওয়ার কারণে তাকে ওই দুটির কোনোটিতেই নেয়া সম্ভব হয়নি।

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার দুপুরে বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চ খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়ার আদেশ দেন। গত ৯ সেপ্টেম্বর খালেদা জিয়া একটি রিট দায়ের করেন। ওই আবেদনের ওপরই গত বৃহস্পতিবার আদালত আদেশটি দেন।

আদালত এও বলেছেন, আবেদনকারী (খালেদা জিয়া) তার পছন্দ অনুসারে ফিজিওথেরাপিস্ট, গাইনোকলজিস্ট ও টেকনিশিয়ান নিতে পারবেন। তবে বোর্ডের অনুমোদন সাপেক্ষে তিনি বাইরে থেকেও বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক আনতে পারবেন।

ইউনাইটেড বা বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা দিতে নির্দেশনা চেয়ে গত ৯ সেপ্টেম্বর খালেদা জিয়া রিট করেন, যার ওপর গত মঙ্গল ও বুধবার শুনানি হয়। গত বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে আদেশ দেন আদালত।

উল্লেখ্য, গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন বিচারিক আদালত। এরপর থেকে তাকে নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন