ড. আব্দুল মুনিম খান আর নেই

ডেইলি ইসলাম : বিশিষ্ট লেখক, গবেষক ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব অধ্যাপক ড. আবদুল মুনিম খান আর নেই। আজ সকালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন। আজ (শনিবার) সকাল ৯ টার দিকে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ইন্তেকাল করেন তিনি।
ড. মুনিম খান খান ছিলেন বহুমাত্রিক প্রতিভাধর ব্যক্তিত্ব। দি ইউনিভার্সিটি অব কুমিল্লা (ইউনিক) উত্তরা, ঢাকার ফ্যাকাল্টি অব লিবারেল আর্টসের ইসলামিক স্টাডিজ ও ইসলামের ইতিহাস বিভাগের এডভাইজার ছিলেন তিনি। এছাড়াও এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়সহ বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি অধ্যাপনা করেছেন। দৈনিক প্রথম আলোর ধর্মীয় উপদেষ্টা হিসেবে পত্রিকাটিতে দীর্ঘদিন শুক্রবারে ইসলাম বিষয়ে কলাম লিখেছেন। তার লেখাগুলো ছিল খুব ভারসাম্যপূর্ণ। প্রথম আলো ছাড়াও দেশের প্রায় সবগুলো জাতীয় দৈনিকে তার গবেষণাধর্মী প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। বাংলাদেশ ক্রীড়ালেখক সমিতিরও সিনিয়র সদস্য ছিলেন তিনি।
এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের সন্তান অধ্যাপক আব্দুল মুনিম খান। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক আনম আবদুল মান্নান খান এর সন্তান তিনি। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি বিভাগ থেকে ১৯৯১ সালে বি.এ অনার্স ও ১৯৯২ সালে মাস্টার্স (থিসিস গ্রুপ) পরীক্ষায় রেকর্ডসংখ্যক নম্বর পেয়ে প্রথম শ্রেণীতে প্রথম স্থান লাভ করেন এবং এবং কলা অনুষদের অধীনে ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ থেকে ২০০২ সালে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন।

২০০৬ সালে তিনি দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিঊট অব ইন্টেলেকচুয়্যাল স্টাডিজ এর সহকারি অধ্যাপক পদে যোগদান করেন। এরপর তিনি যথাক্রমে সহযোগী অধ্যাপক থেকে অধ্যাপক পদোন্নতি লাভ করে দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ ও দাওয়াহ বিভাগের চেয়ারম্যান, সান্ধ্যকালীন প্রোগ্রামের উপ-পরিচালক ও ভারপ্রাপ্ত পরিচালক হিসেবে সুদীর্ঘ ১০ বছর প্রশাসনিক দায়িত্বও পালন করেন।
২০১৭ সালে তিনি এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের এশিয়ান ইনস্টিটিউটের পরিচালক পদে যোগদান করেন। ২০১৮ সালে তিনি এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের ইসলামিক স্টাডিজ ও দাওয়াহ বিভাগের অধ্যাপক হিসেবে এইউবি’র মূল ক্যাম্পাস আশুলিয়ায় পাঠদান করেন। ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বর থেকে তিনি ইউনিভার্সিটি অব কুমিল্লা (ইউনিক) উত্তরা, ঢাকার কলা অনুষদের ইসলামিক স্টাডিজ ও ইসলামের ইতিহাস বিভাগের পূর্ণকালীন এডভাইজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

আজ বাদ আসর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে তারা জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন