বাংলাদেশের প্রশাসনিক উচ্চপদে ৫৩৫ নারী

চলতি সময়ে বাংলাদেশের প্রশাসনের উচ্চপদে ৫৩৫ জন নারী দায়িত্ব পালন করছেন। উপসচিব থেকে সচিব পর্যন্ত এসব পদে এই নারী কর্মকর্তারা দায়িত্ব পালন করছেন।

বর্তমানে প্রশাসনে সিনিয়র সচিব, সচিব ও ভারপ্রাপ্ত সচিব রয়েছেন ৭৮ জন। এরমধ্যে নারী কর্মকর্তা রয়েছেন ৬ জন। নারীদের হার প্রায় ৮ শতাংশ।
সর্বশেষ আজকের (৭ মার্চ) তথ্য অনুযায়ী, নারী অতিরিক্ত সচিব রয়েছেন ৮১ জন, মোট অতিরিক্ত সচিবের সংখ্যা ৫২৬ জন। ৭৩৮ জন যুগ্ম-সচিবের মধ্যে নারী রয়েছেন ৮৭ জন। প্রশাসনে নারী উপসচিব রয়েছেন ৩৬১ জন, বর্তমানে মোট উপসচিবের সংখ্যা এক হাজার ৮৪০ জন।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়ে ২০১৭ সালে একটি পরিসংখ্যান প্রকাশ করেছে। ওই পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সরকারি চাকরিতে মোট নারীর সংখ্যা ৩ লাখ ৬৮ হাজার ৮১৯ জন।

নারীদের মধ্যে প্রথম শ্রেণির সরকারি চাকরিতে কর্মরত রয়েছেন ৩০ হাজার ৪২ জন, দ্বিতীয় শ্রেণিতে ৪০ হাজার ৫৬৩ জন। সবচেয়ে বেশি নারী রয়েছেন তৃতীয় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে, এ স্তরে নারীর সংখ্যা ২ লাখ ৪৮ হাজার ৭৮০ জন। চতুর্থ শ্রেণির চাকরিতে নারীদের সংখ্যা ৪৯ হাজার ৪৩৪ জন।

বিসিএস উইমেন নেটওয়ার্কের এক তথ্যে দেখা গেছে, নারী বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারে ২১ শতাংশ, পুলিশ ক্যাডারে ৯ শতাংশ, পররাষ্ট্র ক্যাডারে ২৫ শতাংশ, স্বাস্থ্য ক্যাডারে ১৭ শতাংশ, শিক্ষা ক্যাডারে ২৭ শতাংশ, পরিবার পরিকল্পনা ক্যাডারে ১৩ শতাংশ, কর ক্যাডারে ১১ দশমিক ২ শতাংশ, অডিট ক্যাডারে ২০ শতাংশ, পরিসংখ্যান ক্যাডারে ৯ দশমিক ৮ শতাংশ।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, প্রশাসনে পাঁচজন সিনিয়র সচিব, সচিব বা সচিব পদমর্যাদার কর্মকর্তা রয়েছেন। এরা হলেন- সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব জুয়েনা আজিজ, পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য শামীমা নার্গিস, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব কামরুন নাহার, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক অথরিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব রৌনক জাহান এবং শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব উম্মুল হাসনা।
এসব পরিসংখ্যান সামনে রেখে বলা যায়, বাংলাদেশে এখন নারীর ক্ষমতায়নের স্বর্ণযুগ চলছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন