বৃষ্টির কারণে ফাঁকা বিনোদন কেন্দ্রগুলো

ডেইলি ইসলাম : ঈদ উপলক্ষে রাজধানীর ঐতিহাসিক স্থান আর বিনোদন কেন্দ্রগুলো জনসাধারণের জন্য বিশেষ ব্যবস্থায় খোলা রয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্র নতুন করে সাজিয়ে-গুছিয়ে রাখা হয়েছে। সাধারণত যে কোনো ঈদের দিন নামাজের পর থেকেই দর্শনার্থীদের সমাগম ঘটতে শুরু করে যেসব বিনোদন কেন্দ্রে আজ বৃষ্টির কারণে সেখানে মিলছে না মানুষের দেখা। রাজধানীর প্রায় সবগুলো বিনোদন কেন্দ্রের একই অবস্থা।

আজ আহসান মঞ্জিল, লালবাগ কেল্লার মত ঐতিহাসিক স্থানসহ অন্যসব বিনোদন কেন্দ্রগুলোর কোথাও মানুষের ভিড় ছিল না আজ।

সাধারণত রাজধানীর সব শ্রেণির মানুষেরই দেখা মেলে হাতিরঝিলে । ঈদের দিন সকাল থেকেই সেখানে ভিড় জমান হাজারো মানুষ। কিন্তু সেখানে বিনোদনপ্রেমীদের দেখা মিলেনি আজ।

আজ বৃষ্টির কারণে লোকজনকে পরিবার-পরিজন, বন্ধুবান্ধব নিয়ে ছুটে আসতে দেখা যায়নি রাজধানীর মিরপুর চিড়িয়াখানায়।

ব্যয় কম হওয়ায় সাধারণত মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত পরিবারের জন্য সবচেয়ে সহজ বিনোদন কেন্দ্র ছিল শাহবাগে অবস্থিত শিশুপার্ক। কিন্তু আরও চমকপ্রদ বিনোদন কেন্দ্র হিসেবে নতুনভাবে গড়ে তুলতে প্রায় ৫ মাস ধরে এই পার্ক বন্ধ করে সংস্কারের কাজ চলছে।

প্রতি বছর ঈদে রাজধানীর জাতীয় জাদুঘরে প্রবেশ পথে দর্শনার্থীর ভিড় থাকে। রাজধানীতে যাদের স্থায়ী বসবাস কিংবা কোনো কারণে গ্রামে যেতে পারেননি তাদের জন্য জাতীয় জাদুঘর ছিল অন্যতম সময় কাটোনোর জায়গা। সুবিধাবঞ্চিত শিশু, প্রতিবন্ধী ও শিক্ষার্থীদের বিনা টিকেটে জাতীয় জাদুঘর পরিদর্শন করার সুযোগ রেখেছে সরকার। আজ ঈদের দিন সকাল থেকেই সেখানে দর্শনার্থীদের সংখ্যা নেই বললেই চলে।

মহানগরীর তরুণ-তরুণীদের বিনোদনের অন্যতম স্থান রাজধানীর পূর্বাচলের বালু নদী এখন । অনেকেই নদীর তীরে বসে বন্ধুবান্ধব নিয়ে চুটিয়ে আড্ডা দেন। ঈদের দিন পরিবার-পরিজন নিয়ে নৌকা ভ্রমণে বের হন অনেকেই। তবে, আজ ঈদের সকাল গড়িয়ে গড়িয়ে দুপুর হলেও মানুষের নেই বললেই চলে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন