মাদরাসাতুল মানসুর-এর হাদিস প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের নিয়ম ও নমুনা প্রশ্ন

    প্রতিযোগিতার নিয়মাবলি

 লিখিত প্রতিযোগিতার স্থানসমূহ : 

ক. মাদরাসাতুল মানসুর বাংলাদেশ, পশ্চিম জয়দেবপুর, গাজীপুর
খ. খুলনা; গ. সিলেট ঘ. চট্টগ্রাম (এই তিনটি বিভাগের নির্দিষ্ট স্থান পরে জানানো হবে)

 প্রতিযোগিতার সময় : 
ক. লিখিত প্রতিযোগিতা ২২ নভেম্বর, ২০১৮। রোজ বৃহস্পতিবার। দুপুর ২ টা থেকে পৌনে চারটা পর্যন্ত।
খ. মৌখিক প্রতিযোগিতা ২৯ নভেম্বর, ২০১৮। রোজ বৃস্পতিবার। সকাল সাড়ে নয়টা হতে শুরু। লিখিত প্রতিযোগিতায় বাছাইকৃতরা অংশগ্রহণ করবে। তাদের নাম ও ঠিকানা অনলাইনে প্রকাশ করা হবে; তাদেরকে ফোনে জানিয়ে দেওয়া হবে।
গ. নারী প্রতিযোগীদের লিখিত ও মৌখিক প্রতিযোগিতা ২৪ নভেম্বর, ২০১৮। রোজ শনিবার, সকাল ১০ ঘটিকায়। প্রথমে লিখিত, তারপর মৌখিক। প্রত্যেক নারী প্রতিযোগী অবশ্যই একজন মাহরাম পুরুষ নিয়ে আসবেন। দুপুরে তাদের জন্য আপ্যায়নের ব্যবস্থা থাকবে।
স্থান : মাদরাসাতুল মানসুর বাংলাদেশ।

 মৌখিক প্রতিযোগিতার একমাত্র স্থান : মাদরাসাতুল মানসুর বাংলাদেশ।
ক. মৌখিক প্রতিযোগিতার দিন অংশগ্রহণকারীদের জন্য দুপুরে খাবারের ব্যবস্থা থাকবে।
খ. প্রতিযোগিতা সকলের জন্য উন্মুক্ত। তবে কেবল দ্বিতীয় পুরস্কার ছাত্রদের জন্য নির্দিষ্ট থাকবে। পিএইচডি ও এমফিল গবেষক ছাত্র বলে বিবেচিত হবেন না।
গ. প্রথম তিনটি পুরস্কার ‘মাদরাসাতুল মানসুর বাংলাদেশ’-এর ছাত্র-শিক্ষক বা সংশ্লিষ্ট কারও জন্য প্রযোজ্য নয়।
ঘ. অনিবার্য কারণবশত প্রতিযোগিতার স্থান বা সময় পরিবর্তন করা হলে ফোন বা মেসেজে সবাইকে জানানো হবে।
ঙ. রেজিস্ট্রেশন ফরম পাঠানোর সর্বশেষ সময় ১লা নভেম্বর, ২০১৮।

 পুরস্কারসংক্রান্ত
ক. প্রথম ও দ্বিতীয় পুরস্কার পবিত্র হজ। তৃতীয় পুরস্কার ওমরা। প্রতিযোগিতার পর বিজয়ীদের পাসপোর্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জমা দিবে। তারা যাবতীয় ব্যবস্থা করবে। নগদ টাকা কাউকে দেওয়া হবে না।
খ. নারী বিজয়ীগণ কেবল তিনি নিজে হজ বা ওমরায় যেতে পারবেন; তাঁর পুরুষ মাহরামের ব্যবস্থা নিজের খরচে করতে হবে।
গ. ২০১৮ সনের ডিসেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহে মাদরাসাতুল মানসুর বাংলাদেশের বার্ষিক মাহফিলে পুরস্কার বিতরণ করা হবে। হজ ও ওমরার ক্ষেত্রে প্রতীকী চেক এবং বাকি ৩০টি পুরস্কার বই-কিতাব দেওয়া হবে।

 প্রতিযোগিতার নমুনাপ্রশ্ন 
মোট নম্বর : ২০০ (লিখিত ১০০ + মৌখিক ১০০)
অর্থ ও মর্মসহ বিষয়ভিত্তিক হাদিস প্রতিযোগিতার মূল উদ্দেশ্য বইয়ে প্রদত্ত বিষয়গুলো প্রতিযোগীদের আত্মস্থ করা। তাই নম্বর দেওয়া হাদিসগুলো মুখস্থ করার পাশাপাশি প্রাসঙ্গিক আলোচনা এবং ব্যাখ্যা সম্পর্কে ধারণা রাখতে হবে। প্রতিযোগিতার ১ম ধাপ লিখিত; দ্বিতীয় ধাপ হবে মৌখিক।

 লিখিত প্রশ্নের নমুনা : [মোট প্রশ্ন থাকবে ৫টি; সবগুলো প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে]
ক. যেকোনো নির্দিষ্ট বিষয়ে একটি বা একাধিক হাদিস মুখস্থ লেখো। যথা: ‘কাবলাল জুমুআ সুন্নতে মুয়াক্কাদা’—এ বিষয়ে দুটি হাদিস লেখো।
খ. হাদিসের ইবারত ও তরজমা করো।
গ. হাদিসের কিছু অংশ তুলে দেওয়ার পর বলা হবে বাকি অংশ আরবিতে পূরণ করো।
ঘ. যেকোনো একটি বিষয় দেওয়ার পর বলা হবে, এ বিষয়ে আলোচনা করো। উদাহরণত ‘তকদির ও তদবির’ বিষয়ে একটি আলোচনা লেখো। আলোচনাটি অবশ্যই ‘বিষয়ভিত্তিক হাদিস’ বইয়ের আলোকে হতে হবে।
ঙ. এই বইয়ে বিভিন্ন মাসআলা, পরিভাষার সংজ্ঞা এবং কিছু বিষয়ে প্রচলিত কিছু ভুল ও কুসংস্কার তুলে ধরা হয়েছে। এগুলো সম্পর্কে জানতে চাওয়া হবে। যথা :
* সালামের ক্ষেত্রে কিছু ভুল ও কুসংস্কার হতে ২/৩ টি বিষয় উল্লেখ করো।
* বাইউল ওয়াফা ও বাইউল মুরাবাহার সংজ্ঞা দাও।
* সালাতুত তাসবিহ পড়ার নিয়ম লেখো।

 মৌখিক প্রশ্নের নমুনা : (মোট প্রশ্ন থাকবে ৫টি)
তিনটি প্রশ্ন থাকবে মুখস্থ হাদিস থেকে। আর দুইটি প্রশ্ন প্রাসঙ্গিক আলোচনা, ব্যাখ্যা, মাসআলা, সংজ্ঞা, হাদিসের দ্বন্ধ নিরসন, পরস্পরবিরোধী দুটি বিষয়ের সামঞ্জস্য সাধন—ইত্যাদি যেকোনো বিষয় হতে পারে। তবে বইয়ের আলোচনার বাইরে কোনো প্রশ্ন করা হবে না।

জেবিএস/এমএমইউ

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন