শীর্ষ ব্যক্তিদেরই দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থার প্রতি আস্থা নেই: রুমিন ফারহানা

রুমিন ফারহানা

শীর্ষ ব্যক্তিদেরই দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থার প্রতি আস্থা নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা। রোববার জাতীয় সংসদে ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে স্বাস্থ্যখাতের জন্য বরাদ্দ প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি একথা বলেন। তিনি বলেছেন, এদেশের শীর্ষ পদে থাকা ব্যক্তিরাই যখন চিকিৎসার জন্য বিদেশে যান, তখন স্পষ্ট হয়ে যায় এদেশের চিকিৎসা ব্যবস্থার প্রতি তাদেরও কোনো ভরসা নেই।

বিএনপি থেকে মনোনিত সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা আরও বলেন, শুধু ভারতে যেসব বাংলাদেশিরা চিকিৎসার জন্য যান, তারা প্রায় ৭ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করেন বছরে। এক সময় অনেক পিছিয়ে থাকা মালয়েশিয়ায় এখন অনেকে চিকিৎসার জন্য যান। দেশে শীর্ষ পদে থাকা ব্যক্তিরাও যখন চিকিৎসার জন্য বিদেশে যান, তখন স্পষ্ট হয়ে যায় তাদেরও কোনো ভরসা নেই এদেশের চিকিৎসা ব্যবস্থার প্রতি।

তিনি আরও বলেন, এমন পার্লামেন্টে বসেছি যেখানে কোনটা সরকারি দল আর কোনটা বিরোধী দল কিছুই বুঝতে পারছি না।

দেশে শীর্ষ পদে থাকা ব্যক্তিদের দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থায় ভরসা নেই উল্লেখ করে রুমিন ফারহানা আরও বলেন, স্বাস্থ্যখাতে কমপক্ষে জিডিপির ৫ শতাংশ বরাদ্দ দেবার কথা যার আশপাশেও নেই আমরা। এবার আমাদের বরাদ্দ হয়েছে দশমিক ৮৯ শতাংশ। যেটা দক্ষিণ এশিয়ায় সব থেকে কম। শ্রীলঙ্কা, ভারত, নেপাল, ভুটান, মালদ্বীপে যথাক্রমে বরাদ্দ জিডিপির ২ শতাংশ, ২.৩, ২.৫, ২.৬ এবং ১০.৮ শতাংশ।

এ সময় স্বাস্থ্য সেবাখাতে বরাদ্দ অপ্রতুল, দেশে চিকিৎসা সেবার মান খারাপ, যার জন্য বিদেশে কোটি কোটি টাকা খরচ করে চিকিৎসা করতে যাওয়ার অভিযোগ করেন এই সংসদ সদস্য। তিনি বলেন, এমনকি আফগানিস্তানে বরাদ্দ ২.৯ শতাংশ।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন