সর্বসম্মতিক্রমে কওমি আইন করেছি, এ নিয়ে আর কোনো কথা থাকতে পারে না; সংসদে প্রধানমন্ত্রী

বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন, ০১৭৭৬৭৮৫৪৭৮, ০১৯৬৭৯৭৯০৯৩

কওমি মাদরাসা নিয়ে রাশেদ খান মেননের বক্তব্যের পর চলমান উত্তেজনার মধ্যেই কওমি মাদরাসার পক্ষে সংসদে কথা বললেন প্রধানমন্ত্রী।

মেননদের এ ধরণের বক্তব্য নাকচ করে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সর্বসম্মতিক্রমে কওমি মাদরাসা স্বীকৃতির আইন হয়েছে। এ নিয়ে আর বিষোদগারের কোনো সুযোগ নেই।’

এ সময় কওমি শিক্ষার্থীদের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘তারা তো আমার দেশেরই সন্তান। দেশেরই মানুষ। তাদের আমরা ফেলে দেব?’ প্রধানমন্ত্রীর এ বক্তব্যের সমর্থন জানান সাংসদরা।’

তখন রাশেদ খান মেনন ও হাসানুল হক ইনুকে বিষণ্ণ দেখা গেছে। কওমি মাদরাসার ছাত্রদের মেধাবী উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এখানে কিন্তু অনেক মেধাবী ছেলেপেলে আছে। অনেক মাদ্রাসায় কম্পিউটারও শিক্ষা দেওয়া হয়। দেয়া হয় না তা না। তারা যথেষ্ট মেধাবী। তাহলে তাদের মেধাটাও আমরা কেন আমাদের দেশের কাজে লাগাব না?’

দেওবন্দ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘সেই সিপাহী বিপ্লব থেকে নিয়ে ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলন যারা করেছিলেন, তাদেরই সৃষ্টি এ দেওবন্দ।’

কওমি মাদরাসা স্বীকৃতি দিয়ে তিনি যথার্থই করেছেন বোঝাতে গিয়ে বলেন, ‘এটা কোনো অন্যায় কাজ করিনি।’

মাদরাসা ও জঙ্গিবাদ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এখানে কেউ কেউ বলবেন মাদরাসা হচ্ছে একেবারে সন্ত্রাস বা জঙ্গিবাদ সৃষ্টির কারখানা। এটা কিন্তু সঠিক নয়। আমি এর সঙ্গে সম্পূর্ণ একমত না। হলি আর্টিজানে যে ঘটনা ঘটেছে, বা আমাদের দেশের যেকোনো জঙ্গি ঘটনা, এর সঙ্গে কারা জড়িত? ইংরেজি মাধ্যমে পড়াশোনা করা উচ্চবিত্ত পরিবারের সন্তান। তারাই কিন্তু এ জঙ্গিবাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছে। তারা কিন্তু ইংরেজি মিডিয়াম ও এক প্রাইভেট ইউনিভার্সিটির ছাত্র।’

কওমি মাদরাসা নিয়ে বিরূপ মন্তব্যের সুযোগ নেই জানিয়ে তিনি ববলেন, ‘আমরা যে স্বীকৃতি দিয়েছি সেটা কিন্তু আমরা সংসদে আইন করেছি এবং সর্বসম্মতিক্রমে সে আইনটা আমরা পাসও করে দিয়েছি। তারএর পরে তো আর এ নিয়ে কোনো কথা থাকতে পারে না।’

উল্লেখ্য, গত ৩ মার্চ সাংসদ রাশেদ খান মেনন কওমি মাদরাসাকে ‘বিষবৃক্ষ’ ও আল্লামা শফীকে কটাক্ষ করে সংসদে বক্তব্য প্রদান করলে দেশজুড়ে এর তীব্র প্রতিবাদ শুরু হয়। দেশজুড়ে চলমান উত্তেজনার হাওয়া লাগে সংসদেও। সংসদে ফিরোজ রশীদ খান ও ড. আবু রেজা নদভির প্রতিবাদের পর এ নিয়ে সরাসরি কথা বললেন খোদ প্রধানমন্ত্রী।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন