সাদা চামড়ায় মোড়ানো কালো বর্বরতা

বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন, ০১৭৭৬৭৮৫৪৭৮, ০১৯৬৭৯৭৯০৯৩

ব্রান্টন টেরেন্ট-এর অস্ত্রে লিখা আছে ভিয়েনা ১৬৮৩। ইতিহাস বলছে, উসমানি খিলাফতের সঙ্গে ১৬৮৩ সালে ভিয়েনার সঙ্গে যুদ্ধ হয়। নিউজিল্যান্ডের মসজিদে হামলাকারীর আইডিওলজিকাল ঘৃণাও এ ঘৃণা চামড়াকেন্দ্রিক, White supremist, racist।

যে Brenton Tarrant নিউজিল্যান্ডে ৪০জন মানুষের জীবন শেষ করল, সে মোর হোয়াইট দ্যান ক্রিশ্চিয়ান। হান্টিংটন সাহেবের ক্ল্যাশ অফ সিভিলাইজেশান্স আর Brenton Tarrant-এর মাথায় একই টেনশন হলো, দুনিয়া সাদা ইউরোপিয়ানগো হাত থেকে অসাদাদের হাতে চইলা যাচ্ছে। ক্রুসেডের সময়েও এই হোয়াইট টেরোরিজম লক্ষ্য করা গেছে। অর্থোডক্স ক্রিশ্চিয়ানদের জবাই করার কাজটা মুসলিমরা না, ক্যাথলিকরা করেছে। ১২০৪ সালে মোর হোয়াইট ক্যাথলিক ক্রিশ্চিয়ানরা কন্সটান্টিনোপলে ম্যাসাকার চালায়। ১৪৯২ পরের প্রায় ত্রিশ বছরে সারা দুনিয়ায় নির্বিচারে চালায় জেনোসাইড।দিস ফর্ম অফ টেরোরিজম ইজ মোর ওয়াইট দ্যান ক্রিশ্চিয়ান ফ্রম ইটস বার্থ। কিন্তু, এই সাদা ঘৃণা আরো বাড়বে। এক পর্যায়ে এইটা স্রেফ মুসলিমদের সমস্যা হিসাবে থাকবে না। সাদা ঘৃণা ইউরোপ ও আমেরিকায় থাকা ইহুদিদেরও ফের হামলার নিশানায় পরিণত করবে। লিবারেল সাদা ক্রুসেডার ক্রমেই ফার রাইট ক্রুসেডারে পরিণত হবে। লিবারেল হিন্দু হিন্দুত্বের মধ্যে জীবনের স্বাদ পাবে, আর পরিচয় ভোলা কলোনাইজড মুসলিম ফোটা ফোটা লহুতে আবিষ্কার করবে নিজের দ্বিনকে। (ফরহাদ মজহারের পোস্ট থেকে, সম্পাদিত)।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন