মোল্লাতন্ত্র ও মেনন

যুবায়ের আহমাদ

‘যেই দলটির (আওয়ামী লীগ) করুণা না পেলে গণবিচ্ছিন্ন মেনন সাহেব মন্ত্রী হওয়া তো দূরের কথা, এমপি হতে গিয়ে যেনতেন প্রার্থীর সঙ্গেও জামানত হারাতেন, ১৯৪৯ সালের ২৩ জুনন সেই দলটির জন্ম দিয়েছেন ‘মোল্লারা’ (আলেমরা)। ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন আওয়ামী লীগ (তৎকালীন আওয়ামী মুসলিম লীগ) প্রতিষ্ঠা করেন মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানি। দলটির প্রথম সেক্রেটারি ছিলেন মৌ. শামসুল হক নামের আরেক ‘মোল্লা’। দলটির সঙ্গে জড়িয়ে আছে কলকাতা আলিয়া মাদ্রাসার ছাত্র হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী নামক আরেক ‘মোল্লার’ নাম।

দলের নাম থেকে ‘মুসলিম’ শব্দ বাদ দেয়ার পরও ১৯৫৬ সাল থেকে দলটির সভাপতি ছিলেন সালঙ্গা বিদ্রোহের মহানায়ক, দারুল উলুম দেওবন্দের ছাত্র মাওলানা আব্দুর রশীদ তর্কবাগিশ নামের আরেক ‘মোল্লা’। মোল্লা পরিবারের সন্তান হাফেজ তাজউদ্দিন আহমেদ (স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী) নামের আরেক ‘মোল্লা’ অবদান রেখেছেন দলটির জন্য।

সুতরাং মেনন সাহেবের পিতামাতার বিয়ের সময় মোল্লার প্রয়োজন ছিল কিনা জানি না। তবে এতটুকু বলতে পারি, মোল্লাদের পয়দা করা দলটির করুণা ভিক্ষা না পেলে তার গাড়িতে পতাকা উড়াতে পারতেন না। সংসদে দাঁড়িয়ে কোনোদিন কথা বলার সুযোগ পেতেন না। জামানত হারাতেন বারবার। আজ তিনি ইতিহাস ভুলে গেছেন। সংসদে দাঁড়িয়ে ‘মোল্লাতন্ত্র’ বলে আলেমদের বিষোদগার করছেন!’ -গতদিন এক ওয়াজে আমার বক্তব্যের অংশ।

খতিব, লেখক

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন