সরকারি খরচে হজে যাচ্ছেন ২২৯ জন

ঢাকা : প্রতি বছর বাংলাদেশ থেকে সরকারি খরচে বেশকিছু ধর্মপ্রাণ মুসলমান হজ করতে যান। এ বছরও সেলক্ষ্যে ২২৯ জন ব্যক্তির তালিকা তৈরি করেছে সরকার। গত বৃহস্পতিবার ধর্ম মন্ত্রণালয় এ বছর রাষ্ট্রীয় খরচে হজে যাওয়া ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের সর্বশেষ সংশোধিত তালিকা প্রকাশ করে। তালিকায় স্থান পেয়েছেন রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের ১৫ জন কর্মচারী, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের কয়েকজন কর্মচারী, বিভিন্ন সরকারি অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারী, স্কাউটার, রোভার স্কাউট, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক, মাদরাসা শিক্ষক, মসজিদের ইমাম ও খতিব, সরকারপন্থী সাংবাদিক ইউনিয়নের বিভিন্ন জেলার নেতা এবং বিভিন্ন এলাকার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ।

এসব ব্যক্তি হজে প্যাকেজ-২ এর সুযোগ-সুবিধা পাবেন। প্রত্যেক হজযাত্রীর জন্য সরকারের খরচ হবে তিন লাখ ৩১ হাজার ৩৫৯ টাকা। মোট খরচ হবে সাত কোটি ৫৮ লাখ ৮১ হাজার ২১১ টাকা। আগামী ৯ আগস্ট তাদের সৌদি আরবে যাওয়ার কথা রয়েছে।

আরো পড়ুন: বাংলাদেশি হাজিদের উষ্ণঅভ্যর্থনা সৌদি কর্তৃপক্ষের

আরো পড়ুন: যাত্রীর অভাবে ১০টি হজ ফ্লাইট বাতিল

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে জানান হয়, রাষ্ট্রীয় খরচে হজ পালনকারীরা ফ্লাইট প্রাপ্তিসাপেক্ষে আগামী ৯ আগস্ট সৌদি আরবে যাবেন এবং ১৭ সেপ্টেম্বর দেশে ফিরে আসবেন। তাদের ভ্রমণ ব্যয় চলতি অর্থবছরে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের ‘বাংলাদেশের বাইরে হজ বাবদ ব্যয়’ খাতে বরাদ্দকৃত অর্থ থেকে বহন করা হবে। খাবার খরচ ৩০ হাজার টাকা ছাড়া অন্য কোনো ব্যয় অথবা ভাতা প্রাপ্য হবেন না। খাবার খরচের ৩০ হাজার টাকার মধ্যে মদিনায় খাবার খরচ বাবদ ছয় হাজার ৭০০ টাকা কেটে রেখে অন্য ২৩ হাজার ৩০০ টাকা ঢাকার আশকোনা হজ অফিস থেকে নগদ প্রদান করা হবে। এ ছাড়া তালিকায় থাকা সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সৌদি আরবে অবস্থানকালে নিজ নিজ কর্মস্থল থেকে বাংলাদেশের স্থানীয় মুদ্রায় বেতনভাতা প্রাপ্য হবেন।
জেবিএস/

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন