‌‘মুফতি ইজহারুল ইসলাম হেফাজতের কেউ নন’

‘মুফতি ইজহারুল ইসলাম হেফাজতের কেউ নন। আগেও ছিল না এখনও নেই। যিনি হেফাজতের দায়িত্বশীলই নন, তিনি আবার হেফাজত আমীরকে বহিষ্কার করবেন-এটা পাগলের প্রলাপ ছাড়া কিছু নয়।’

রোববার হাটহাজারী মাদ্রাসায় হেফাজতের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক জরুরি সভা শেষে হেফাজতে ইসলাম নেতারা এসব কথা বলেন।

হেফাজত আমীর আল্লামা শাহ আহমদ শফীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভা শেষে বিভিন্ন গণমাধ্যমে একটি বিবৃতি প্রেরণ করা হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, হেফাজতে ইসলাম দেশের শীর্ষ উলামায়ে কেরামের একটি বৃহৎ অরাজনৈতিক সংগঠন। আল্লামা শাহ আহমদ শফীর নেতৃত্বে দেশের উলামায়ে কেরাম হেফাজতের ব্যানারে ঐক্যবদ্ধ ছিল, আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে।

হেফাজতে ইসলাম কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদীর পাঠানো ওই বিবৃতিতে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা আমীর আল্লামা শাহ আহমদ শফীর বিরুদ্ধে কয়েকটি পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনে মুফতি ইজহারুল ইসলামের বিবৃতির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়।

তবে ‘হেফাজতের কেউ নন’ বিষয়টি মানতে নারাজ ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মুফতি ইজহারুল ইসলাম। তিনি এ প্রতিবেদককে জানান, আমি হেফাজতের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতাদের মধ্যে অন্যতম। আমার পরামর্শে আল্লামা আহদ শফী আমির ও আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী মহাসচিব হয়েছেন। প্রতিষ্টালগ্ন থেকে আমি হেফাজতের প্রত্যকটি ইস্যু ভিক্তিক আন্দোলনে সক্রিয় ছিলাম। আমি হেফাজতের প্রতিষ্ঠাতা নায়েবে আমির ছিলাম এবং এখনও আছি। আমি হেফাজতের সংস্কার ও উক্ত সংগঠনের অর্থের হিসাব চেয়েছি বলে তাদের চক্ষুশূল হয়েছি।

রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন, হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী, মাওলানা হাফেজ তাজুল ইসলাম, যুগ্ন মহাসচিব মাওলানা মুহাম্মদ সলিমুল্লাহ, মাওলানা লোকমান হাকিম, মাওলানা সাজিদুর রহমান, মাওলানা আইয়ুব বাবুনগরী, মাওলানা মুফতি জসীমুদ্দিন, মাওলানা আশরাফ আলী নেজামপুরী, মাওলানা ইসহাক মেহেরী, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী, প্রচার সম্পাদক মাওলানা মুহাম্মদ আনাস মাদানী ও মাওলানা মুফতি রহিমুল্লাহ প্রমুখ।

জেএস/

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন