হাটহাজারীর বৈঠকে দাওয়াত পাননি মাওলানা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ

টঙ্গীর ইজতেমার মাঠে সাদপন্থীদের হামলার প্রেক্ষিতে করণীয় নির্ধারণে আজ চট্টগ্রামের হাটহাজারী মাদরাসায় দেশের প্রতিনিধিত্বশীল আলেম ও তাবলিগি মুরব্বিদের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে মাওলানা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ এবং তাঁর নেতৃত্বাধীন বেফাকুল মাদারিসিদ দীনিয়া বাংলাদেশের কোনো প্রতিনিধি এ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন না।

আল্লামা আহমদ শফীর সভাপতিত্বে বৈঠকে অংশগ্রহণ করেছেন বাংলাদেশ কওমি শিক্ষাবোর্ড বেফাকসহ সম্মিলিত কওমি শিক্ষাবোর্ড আল-হাইআতুল উলয়া লিল-জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশের অংশিদার কওমি ধারার শিক্ষাবোর্ডগুলোর প্রতিনিধিগণ।

উপস্থিত ছিলেন বেফাকের সিনিয়র সহ-সভাপতি আল্লামা আশরাফ আলী ও মহাসচিব মাওলানা আবদুল কুদ্দুস, বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়াহ, গওহরডাঙ্গার প্রধান মুফতি রুহুল আমীন, আযাদ দ্বীনী এদারায়ে তালিম সিলেটের মাওলানা আব্দুল বছির, উত্তরবঙ্গের তানজিমুল মাদারিসিল কওমিয়া্র মাওলানা মাহমুদ হাসান, ইত্তেহাদুল মাদারিসিল কওমিয়্যাহ-এর মাওলানা আবু তাহের নদভি।

সূত্র জানায়, টঙ্গীর হামলার সঙ্গে মাওলানা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদের নাম জড়িয়ে যাওয়া এবং নৃশংস হামলার পরও ওলামাদের বিপক্ষে এবং সাদপন্থীদের পক্ষে নানান ধরনের বক্তব্য দেওয়ায় তার বিরুদ্ধে সাধারণভাবেই আলেম সমাজ ক্ষুব্ধ। সারাদেশের আলেম-উলামা ও মাদরাসার ছাত্র-শিক্ষকদের মনোভবের প্রতি লক্ষ্য রেখেই তাকে এবং তার বোর্ডের প্রতিনিধিদের আজকের বৈঠকে দাওয়াত দেওয়া হয়নি।

এদিকে আজকের বৈঠকে মাওলানা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদের ব্যাপারে অনেকেই ক্ষোভও প্রকাশ করেছেন বলে জানা গেছে। তবে তার ও তার বোর্ডের ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন