‘দেশভক্ত’দের বেধড়ক মারে রক্তাক্ত, তবু ভারত ছাড়বেন না কাশ্মীরের শাল বিক্রেতা জাভেদ

আলোআঁধারিতে মোবাইলে তোলা অস্পষ্ট ভিডিও। কোলাপসিবল গেটের ওপারে সেঁধিয়ে যাওয়া যুবকের নাকমুখ থেকে রক্ত ধরছে। উগ্র ‘দেশভক্তি’র জিগির তোলা উন্মত্ত বাহিনী তাঁকে গালি দিতে দিতে বলছিল, ‘‘বল বন্দেমাতরম, বল ভারতমাতা কি জয়!’’

নদিয়ার তাহেরপুরে গত দশ বছর ধরে শাল বিক্রির সূত্রে যাতায়াত জম্মু-কাশ্মীরের বদগামের বাসিন্দা জাভেদ আহমেদ খানের। এলাকার বহু মানুষের সঙ্গে চেনাশোনা, বন্ধুত্ব। একটি দোকানঘর রয়েছে তাঁদের, আছে ভাড়াবাড়িও। কোনও দিন নিরাপত্তার অভাব বোধ করেননি। সোমবার রাত ন’টা নাগাদ মারমুখী কিছু লোক ১৭ নম্বর রাস্তার ধারে তাঁদের ওই ভাড়াবাড়িতে হামলা চালায়। মেরে নাক-মুখ ফাটিয়ে দেওয়া সেই আক্রমণের ভিডিয়ো ভাইরাল হয়ে ছড়িয়ে পড়ে মঙ্গলবার। তার পরেও বুধবার জাভেদ কিন্তু সেখানকার আনন্দবাজার পত্রিকাকে বললেন, ‘‘জানি মুষ্টিমেয় কিছু লোক বিদ্বেষ ছড়াতে এ সব করছে। এতে ভয় পাব না। পশ্চিমবঙ্গের মানুষের উপরে পূর্ণ আস্থা রয়েছে আমাদের।’’

মঙ্গলবার রাতে জাভেদের উপরে যখন হামলা হয়, তখন এলাকারই কিছু লোক পুলিশকে জানিয়েছিলেন। ঘণ্টাখানেক পরে পুলিশ এসে উদ্ধার করে জাভেদ আর তাঁর ভাই মেহরাজ উদ্দিনকে। তাঁদের আপাতত একটি নিরাপদ জায়গায় রাখা হয়েছে। ইতিমধ্যে গ্রেফতারও করা হয়েছে এক জনকে, যদিও পুলিশ তার পরিচয় জানাতে চায়নি। বাকিদের সন্ধান চলছে বলে জানিয়েছেন নদিয়ার পুলিশ সুপার রূপেশ কুমার। সুত্র : আনন্দবাজার

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন