৩০ হাজার মাদরাসাকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে আনছে পাকিস্তান

ডেইলি ইসলাম : শিক্ষার মূলধারায় নিয়ে আসার লক্ষ্যে ৩০ হাজার মাদরাসাকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে আনছে পাকিস্তান। গত সোমবার ও বৃহস্পতিবার পৃথক দু’টি সংবাদ সম্মেলনে দেশটির সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারেল আসিফ গফুর। খবর এক্সপ্রেস নিউজ-এর।

তিনি জানান, মাদরাসাগুলোকে সমাজের মূল স্রোতোধারার সঙ্গে মেলাতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আওতায় আনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সে লক্ষ্যে মাদরাসা শিক্ষাব্যবস্থা ঢেলে সাজাতে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ইতিমধ্যে একটি কমিটিও গঠন করেছেন। যারা মাদরাসার জন্য নতুন করে সিলেবাস তৈরি করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে জেনারেল গফুর বলেন, আরবীর পাশাপাশি সাধারণ শিক্ষার সব বিষয় সমন্বয় করে কারিকুলাম প্রণয়ন করা হবে। আমরা চাই মাদরাসা শিক্ষাকে এমন পর্যায়ে নিয়ে যেতে, যেখানে মাদরাসা থেকে পাশ করা ছেলেমেয়েরা সাধারণ শিক্ষায় শিক্ষিতদের সমকক্ষ হিসেবে নিজেদের অবস্থান করে নেবে।

মাদরাসাগুলো সরকার নিয়ন্ত্রণে নিলেও কোনো হস্তক্ষেপ করবে না জানিয়ে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর মুখপাত্র বলেন, ‘নিজেদের মতাদর্শ ছাড়ব না, অন্যদের ওপর তা চাপিয়েও দেব না’ এ নীতিতে সরকার কাজ করছে। মাদরাসা শিক্ষায় তেমন পরিবর্তন আসবে না, তবে পাঠ্যসূচিতে ঘৃণার উপাদানও থাকবে না।

সরকারের এ মুখপাত্র আরো জানান, মাদরাসাগুলোকে সরকারি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য আর এক মাসের মধ্যেই সংসদে প্রস্তাব উত্থাপন করা হবে। সংসদে সিদ্ধান্ত হবে মাদরাসার আধুনিকায়নে সিলেবাস প্রণয়ন ও শিক্ষক নিয়োগসহ অন্যান্য বিষয়গুলো নিয়ে।

উল্লেখ্য, পাকিস্তান সেনাবাহিনীর আন্তঃসংযোগ অধিদফতর আইএসপিআরের তথ্য মতে, পাকিস্তানে এখন ৩০ হাজারের মতো মাদরাসা রয়েছে। যেখানে ২৫ লাখেরও বেশি ছেলেমেয়ে পড়াশোনা করছে। ১৯৪৭ সালে দেশে ২৪৭টি মাদরাসা ছিল। যা ১৯৮০ সালে বেড়ে ২৮৬১ তে দাঁড়ায়। আর এখন তা ৩০ হাজারও ছাড়িয়ে গেছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন