বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের কল্যাণে ‘ফণী’র ক্ষয়ক্ষতি কম হয়েছে : হানিফ

ডেইলি ইসলাম: বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের কল্যাণে ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’ সম্পর্কে আগাম বার্তা পাওয়ায় ক্ষয়ক্ষতি কম হয়েছে বলে মন্তব্য করছেন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ।

তিনি বলেন, ফণী ২০০০ কিলোমিটার দূরে থাকতেই বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে আগাম তথ্য পাওয়া যায়। এই তথ্যের ওপর ভিত্তি করে আগাম প্রস্তুতি নেওয়া হয়। তবে ফণী ওডিশায় যে মাত্রায় আঘাত করেছে সেটা দুর্বল হয়ে ভয়াবহতা কমে বাংলাদেশ সীমান্ত অতিক্রম করছে। এ কারণে মানুষের মধ্যে যে আতঙ্ক তৈরি হয়েছিল ও ক্ষয়ক্ষতির যে আশঙ্কা ছিল সেটা কেটে গেছে।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে হানিফ এসব কথা বলেন।

হানিফ বলেন, ঘূর্ণিঝড় ফণীর ভয়াবহ আঘাত হানার যে পূর্বাভাস পাওয়া যায় তা সঙ্গে সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে এ সরকারের পক্ষ থেকে এই দুর্যোগ মোকাবিলায় ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হয়। ১৯টি জেলার প্রশাসন সার্বিক প্রস্তুতি নিয়েছিল। প্রশাসনের পাশাপাশি আমরা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ওই সব জেলার সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও এমপিদের সঙ্গে যোগাযোগ করে দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর নির্দেশ দেই। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাও মানুষের সার্বিক সহযোগিতায় প্রস্তুতি গ্রহণ করে এবং এগিয়ে আসে। কেন্দ্রীয়ভাবে আমরা মনিটরিং সেল গঠন করে মনিটর করছি।

‘উপকূলীয় বিভিন্ন এলাকা থেকে আমাদের মনিটরিং সেলে ১০০টি ফোন আসে। তারা তাদের এলাকার সমস্যার কথা জানালে তাদের প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেওয় হয়েছে এবং সমস্যার সমাধান হয়েছে। যেসব এলাকায় ক্ষতি হয়েছে আমরা তার তথ্য নিচ্ছি। ফণীর প্রভাব কমে গেলে আওয়াম লীগের টিম যাবে।’ বলছিলেন হানিফ।

সরকারের প্রস্তুতির ঘাটতির কারণে ১৫ জণের প্রাণহানি হয়েছে বিএনপির এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের এই ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক বলেন, সরকারের প্রস্তুতি সম্পর্কে সবাই জানে। এবার যে প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছিল ইতিহাসে এর আগে এত প্রস্তুতির কোনো রেকর্ড নেই। যে ১৫ জনের প্রাণহানি হয়েছে তার মধ্যে ছয়জন মারা গেছেন বজ্রপাতের কারণে। এই প্রাকৃতিক আঘাত কী করে ঠেকানো সম্ভব? তাদের এই অভিযোগ, মিথ্যাচার, নোংরা রাজনীতির বহিঃপ্রকাশ। তাদের এসব কথা অনেকে পাগলের প্রলাপ বলে মনে করে। তাদের প্রতি ধিক্কার ও করুণা জানাই। বিএনপির অভ্যন্তরীণ কোন্দল রয়েছে। তারা নিজেদের সমস্যাগুলো ঢাকার জন্যই সরকারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যাচার করে।

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক ও দীপু মণি, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম, এ কে এম এনামুল হক শামীম ও আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, উপদপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া উপস্থিত ছিলেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন