ব্যাগে গরুর গোশত পেয়ে বাবা-ছেলেকে নির্যাতন বিএসএফের

সদ্য বিয়ে করেছেন ছেলে। কাজেই তার শ্বশুর বাড়ি থেকে অতিথি আসবেন। তাই বাবা-ছেলে মিলে সওদা করতে বাজারে গিয়েছিলেন।

ফেরার পথে তাদের দেখা হয় ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর(বিএসএফ) সঙ্গে। ব্যাগের ভেতর গরুর গোশত আছে সন্দেহে জওয়ানরা তাদের থামান।

এরপর তল্লাশি করে সত্যি সত্যি গরুর গোশত পাওয়া গেল তাদের ব্যাগে।

এরপর বাবা-ছেলেকে নিয়ে যাওয়া হয় বিএসএফ ক্যাম্পে। ব্যাপক মারধরের পর ছাড়া পান তারা। গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালেও ভর্তি হতে হয়েছে ভুক্তভোগীদের।

রোববার ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে। এ খবর দিয়েছে দেশটির বিকল্প ধারার সংবাদমাধ্যম ক্যারাভান।

পত্রিকাটি জানিয়েছে, ঘটনায় দায়ী বিএসএফ জওয়ানরা হলেন ব্যাটেলিয়ন ১৭১ ক্যাম্পের সদস্য। মারধরে আহত বাবা গিয়াসউদ্দিনের বয়স ৬২ বছর। ছেলের নাম আনোয়ারুল।

ক্যারাভান জানিয়েছে, স্থানীয় গোয়ালপুকুর থানায় ভুক্তভোগীরা অভিযোগ দায়ের করেছেন। এতদিন ভারতে হিন্দুত্ববাদী উগ্রপন্থীদের হাতে গরু বিক্রি বা জবাইয়ের কারণে অর্ধশতাধিক মুসলিম হত্যার শিকার হলেও কোনো নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ আগে কখনও পাওয়া যায়নি।

এ ঘটনা শিলিগুড়ির স্থানীয় এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ ছড়িয়েছে। বুধবার স্থানীয় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীরা এর প্রতিবাদে বিক্ষোভ করার কথা রয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন