ইসলামবিরোধী সংগঠন হেযবুত তওহীদকে অবিলম্বে নিষিদ্ধ করতে হবে: আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী

ডেইলি ইসলাম : হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী বলেছেন, হেযবুত তাওহীদ যেসকল কার্যক্রম পরিচালনা করে তা সম্পূর্ণ ইসলামের সাথে সাংঘর্ষিক। তারা ইসলামের নামে যেসব সন্ত্রাসবাদের কথা বলে তা ইসলাম সমর্থন করেনা।

আজ রবিবার (২৬ মে)  পুরানা পল্টনস্থ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন মিলনায়তনে ইসলামি আকিদা সংরক্ষণ পরিষদ কর্তৃক আয়োজিত সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘ইসলামবিদ্বেষী অপশক্তি হেযবুত তওহীদ ইসলামের ভুল ব্যাখ্যা দিয়ে সরলমনা মুসলমানদের বিভ্রান্ত করছে। তাদের কার্যক্রম বন্ধ না করা হলে তা রাষ্ট্রের জন্য বড় ধরণের হুমকির কারণ হবে।’

তিনি আরো বলেন, কাদিয়ানী সম্প্রদায় যেমন কাফের, হেজবুত তওহীদও কাফের,এদের ইসলাম এবং দেশবিরোধী কার্যক্রম সম্পর্কে ইসলামপ্রিয় জনতা ও রাষ্ট্রের সকল নাগরিককে সজাগ ও সোচ্চার হতে হবে। আগে আমরা খতমে নবুওতের ব্যানারে কাদিয়ানীদেরকে অমুসলিম ঘোষণা করার দাবী জানিয়েছি। এখন আমাদের দাবী হলো কাদিয়ানীদের সাথে হেযবুত তাওহীদকেও রাষ্ট্রীয় ভাবে অমুসলিম ঘোষণা করতে হবে। ভ্রান্ত এ সংগঠনটি বাংলাদেশের আনাচে কানাচে যত কার্যক্রম পরিচালিত করে তা সরকারি বাহিনীর মাধ্যমে সমূলে উৎখাত করতে হবে। তাদের কোনো কার্যক্রম হতে দেওয়া যাবেনা।

আল্লামা বাবুনগরী বলেন,   হেযবুত তাওহীদ একটি ভ্রান্ত ইসলাম বিদ্বেষী অপশক্তি। তারা ইসলামের ভুল ব্যাখ্যা দিয়ে সরলমনা মুসলমানদের বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে।

ইসলামি আকিদা সংরক্ষণ পরিষদের সভাপতি মুফতি রিজওয়ান রফিকীর সভাপতিত্বে এ সেমিনারে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মাওলানা গাজী ইয়াকুব, মুফতী আবদুল্লাহ ইয়াহইয়া, মুফতী লুতফুর রহমান ফরায়েজী, মাওলানা আব্দুর রহীম আল মাদানীসহ বিষিষ্ট আলেমগণ।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন