১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি শুরু

সারাদেশে ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিতরণ শুরু হয়েছে। সেপ্টেম্বর, অক্টোবর ও নভেম্বর- তিন মাস এই মূল্যে সারাদেশে ৫০ লাখ হতদরিদ্র পরিবারকে চাল দেবে সরকার। এই কর্মসূচির আওতায় পরিবারগুলো প্রতিমাসে ৩০ কেজি করে চাল পাবে।

খাদ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. আরিফুর রহমান অপু জানিয়েছেন, ‘আমরা আগামী তিন মাস হতদরিদ্র পরিবারগুলোতে ১০ টাকা কেজি দরে চাল দেব। সবাইকে একদিনে দেয়া হবে না। চাল আমরা বরাদ্দ দিয়ে দিয়েছি, বিতরণের অফিস আদেশ জারি করা হয়েছে। কোথাও কোথাও বিতরণ শুরু হয়েছে। কোথাও পৌঁছাতে একটু সময় লাগতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ‘মাননীয় খাদ্যমন্ত্রীর মাধ্যমে আমরা ঢাকার কেরাণীগঞ্জে চলা বিতরণ শুরু করব। এই উপজেলায় এবার আমরা পুষ্টি চাল দেব। এজন্য একটু দেরি হবে। আশা করছি চলতি মাসের ২০/২১ তারিখের মধ্যে আমরা সেটা করতে পারবো।’

এবার সাধারণ চাল ছাড়াও আটটি উপজেলায় পুষ্টি চাল দেয়া হবে। এগুলো হলো- ঢাকার কেরাণীগঞ্জ, গাজীপুরের কালিগঞ্জ, গোপালগঞ্জের মোকছেদপুর, ফরিদপুর সদর, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল ও বিজয়নগর, লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ এবং বরগুনার বামনা উপজেলা।

২০১৬ সালের ৭ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কুড়িগ্রাম জেলার চিলমারী উপজেলায় এ ১০ টাকা দরে চাল বিতরণের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।

১০ টাকা কেজি দরে চাল বিতরণ শুরু করার পর তালিকায় স্বচ্ছল ব্যক্তিদের নাম থাকা, বাইরে বেশি দামে চাল বিক্রি করা, ওজনে কম দেয়াসহ নানান অনিয়মের অভিযোগ ওঠে। এর পরিপ্রেক্ষিতে ভুয়া সুবিধাভোগীদের কার্ড বাতিল, ডিলারশিপ বাতিল, ডিলারদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি ও বিভাগীয় মামলা, জরিমানাসহ বিভিন্ন ধরনের শাস্তিমূলক ব্যবস্থাও নেয়া হয়।

গত বছরের শুরুর দিকে ৫০ লাখ উপকারভোগীর তালিকাও ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে খাদ্য বিভাগ।

জেএস/

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন