৭১ শতাংশ ইঞ্জিনের আয়ু শেষ: রেলমন্ত্রী

রেলপথমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক বলেছেন, ‘বাংলাদেশ রেলওয়ে ইঞ্জিন সংকটে ভুগছে। ৭১ শতাংশ ইঞ্জিনের আয়ুষ্কাল শেষ হয়েছে। তারপরও আমাদের মেরামত করে কোনো রকমে চালাতে হচ্ছে। কাজেই এটি রেলওয়ের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি। ইঞ্জিন পাওয়া শুরু করলে অধিক পরিমাণে বিভিন্ন রুটে ট্রেন চালানো সম্ভব হবে এবং এর মাধ্যমে বেশি করে রাজস্ব আহরণ করা যাবে।’

আজ বুধবার রেলভবনে দক্ষিণ কোরিয়ার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুন্দাই রোটেমের সঙ্গে বাংলাদেশ রেলওয়ের জন্য ৭০টি মিটারগেজ লোকোমোটিভ কেনার চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

এ চুক্তিতে বাংলাদেশের পক্ষে স্বাক্ষর করেন প্রকল্প পরিচালক আবদুল মতিন চৌধুরী এবং হুন্দাই রোটেমের পরিচালক (গ্লোবাল) কোয়াং কুন ইউন। এ সময় কোম্পানির প্রেসিডেন্ট ও সিইও সিউয়ং ট্যাক কিম উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোফাজ্জেল হোসেন, মহাপরিচালক কাজী রফিকুল আলম প্রমুখ।

চুক্তি অনুযায়ী ১৮ থেকে ৬০ মাসের মধ্যে ৭০টি ইঞ্জিন সরবরাহ করবে হুন্দাই। টেন্ডারার্স ফাইনান্সের মাধ্যমে এবং বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে এসব ইঞ্জিন কেনা হচ্ছে। বাংলাদেশের মুদ্রায় ১৯৮৬ কোটি ৫৩ লাখ ৪০ হাজার ৬০৮ টাকায় ৭০টি ইঞ্জিন কেনা হচ্ছে।

বর্তমানে বাংলাদেশ রেলওয়েতে ১৭৮টি মিটারগেজ লোকোমোটিভ রয়েছে। এর মধ্যে ১৩৯টির অর্থনৈতিক আয়ুষ্কাল শেষ হয়ে গেছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন