আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুতে সংসদে শোক

সদ্য প্রয়াত সংগীতশিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুতে জাতীয় সংসদে শোক প্রস্তাব আনা হয়েছে। তিনি ছাড়াও সাবেক সংসদ সদস্য, দেশি-বিদেশি বিশিষ্ট ব্যক্তির মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব আনা হয়।

রোববার সংসদের সংসদের ২৩তম অধিবেশন শুরুর পরই তাদের নামে শোক প্রস্তাব উত্থাপিত ও গৃহীত হয়েছে। এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশন শুরু হয়। পরে নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন শেষে আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

আইয়ুব বাচ্চু ছাড়াও সংসদে সাবেক সংসদ সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহ আজিজুর রহমান, সংসদ সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধ সাদির উদ্দিন আহমেদ, সংসদ সদস্য ও ভাষা সৈনিক শাহ মো. আ. রাজ্জাক, সাবেক সংসদ সদস্য আবদুল গণি এবং সাবেক সংসদ সদস্য শাহ্ মোস্তানজিদুল হক খিজিরে নামে শোক প্রস্তাব আনা হয়।

এছাড়া বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্টজন ও আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার আসামি এম এ সামাদ, নৌবহিনীর সাবেক প্রধান রিয়ার এডমিরাল মোশাররফ হোসেন খান (অব.), শিক্ষাবিদ ও ভাষা সংগ্রামী সফর আলী আকন্দ, উত্তর সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র ওসমান গণি, আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরুল্লাহর মা কাজী জেবুন্নেসা বেগম, ভারতের প্রবীণ সাংবাদিক কুলদীপ নায়ারের মৃত্যুতে শোকপ্রস্তাব গ্রহণ করা হয়।

এছাড়া ইন্দোনেশিয়ায় ভূমিকম্প ও সুনামি, তানজানিয়ায় ফেরিডুবি, ফ্লোরিডায় ঘূর্ণিঝড় মাইকেল, ঘূর্ণিঝড় তিতলিসহ দেশ-বিদেশে বিভিন্ন স্থানে প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও দুর্ঘটনায় নিহতদের স্মরণে শোক প্রস্তাব আনা হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন