তারেকের বিষয়ে কিছুই করার নেই ইসির

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এমপি পদে দলীয় মনোনয়ন দেওয়ার ব্যাপারে কমিশনের কিছুই করার নেই বলে জানিয়েছেন ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

সোমবার বিকালে রাজধানীর আগারগাঁয়ে নির্বাচন ভবনে বৈঠক শেষে তিনি একথা বলেন। প্রধান নির্বাচন কমিশনর (সিইসি) কেএম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে বৈঠকে অন্যান্য কমিশনারসহ ইসি সচিব উপস্থিত ছিলেন।

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ গতকাল তারেক রহমান নিয়ে যে অভিযোগ দিয়ে গেছে সেটা নিয়ে ইসি সভায় বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। অনলাইনে মনোনয়ন সাক্ষাতকার গ্রহণ করছেন তারেক রহমান। আচরণ বিধিমালা অনুযায়ী তিনি দেশে নাই, তাই আচরণ বিধিমালা উনার জন্য প্রযোজ্য হবে না। কিন্তু যেহেতু হাইকোর্টের একটি নির্দেশনা রয়েছে, সেই নির্দেশনা পালন করা সকলের দায়িত্ব।’

বিএনপির গ্রেফতার করা নেতাকর্মীদের তালিকা সম্পর্কে তিনি বলেন, সেই তালিকা পর্যালোচনা করে দেখা যাচ্ছে যে মূলত তফসিল ঘটনার আগেই কিছু কিছু মামলা হয়েছে। কিছু কিছু নেতা কর্মীর নাম রয়েছে। নির্বাচন কমিশন মনে করে পূর্ববর্তী ঘটনার জন্য নির্বাচন কমিশন সিদ্ধান্ত নিতে পারে না।

তফসিল ঘোষণার পরও নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা বিষয়ে সচিব বলেন, ৮ তারিখের পরে গ্রেফতারের যে তালিকা দেয়া হয়েছে সেখানে সুনির্দিষ্ট কার কি বিষয় রয়েছে সেটা নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছে। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে মনে হয়েছে সেই ঘটনাগুলোও পূর্ণাঙ্গ বর্ণনা না করায় এ বিষয়ে কমিশন কোনো সিদ্ধান্ত দেয়নি।

প্রসঙ্গত, পুনঃনির্ধারিত তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ২৮ নভেম্বর, মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের দিন ২ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ৯ ডিসেম্বর এবং ভোটের দিন ৩০ ডিসেম্বর।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
দয়া করে আপনার নাম লিখুন